বৃহস্পতিবার , ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Home » ব্রিটেনের সংবাদ » অ্যাসাঞ্জকে সুইডেন ফেরত পাঠাতে ৭০ বৃটিশ এমপির চিঠি

অ্যাসাঞ্জকে সুইডেন ফেরত পাঠাতে ৭০ বৃটিশ এমপির চিঠি

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃসুইডেন যদি অনুরোধ করে, তাহলে উইকিলিকসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে তাদের হাতে তুলে দিতে বৃটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদের কাছে আবেদন করেছেন কমপক্ষে ৭০ জন এমপি। লিখিত ওই আবেদনের একটি কপি টুইটে পোস্ট করেছেন বিরোধী লেবার দলের স্টেলা ক্রেসি।

এ খবর দিয়ে বিবিস অনলাইন জানাচ্ছে, বৃহস্পতিবার বৃটেনে অবস্থিত ইকুয়েডরের দূতাবাস থেকে গ্রেপ্তার করা হয় অ্যাসাঞ্জকে। যুক্তরাষ্ট্রে তার বিরুদ্ধে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক হ্যাক করার অভিযোগ রয়েছে। তার প্রতিষ্ঠান মার্কিন সরকারের ক্লাসিফাইড বা গোপনীয় স্পর্শকাতর সব ডকুমেন্ট হ্যাক করে প্রকাশ করে দিয়েছিল। এ জন্য তাকে ফেরত চায় যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে তার বিরুদ্ধে সুইডেনে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ আছে। ওই অভিযোগ অস্বীকার করে অ্যাসাঞ্জ দাবি করেছেন, তিনি স্কটহোম সফরের সময় দু’জন নারীর সঙ্গে তাদের সম্মতিতে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন।

অ্যাসাঞ্জ বৃটেনে ইকুয়েডরের দূতাবাসে অবস্থান করার কারণে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে নোটিশ দিতে পারে নি সুইডিশ প্রসিকিউশন। ফলে তারা ওই ধর্ষণ মামলার তদন্ত বাতিল করে ২০১৭ সালে। তবে তাকে গ্রেপ্তারের পর ওই দেশটির প্রসিকিউটররা বলেছেন, তারা নতুন করে ওই তদন্ত শুরু করবেন।

এ অবস্থায় বৃটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদের কাছে কমপক্ষে ৭০ বৃটিশ এমপি চিঠি লিখেছেন। এতে স্বাক্ষরকারীদের বেশির ভাগই লেবার দলের। তাতে সাজিদ জাভিদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে যৌন সহিংসতার শিকার ব্যক্তিদের পাশে দাঁড়াতে। তদন্ত যথাযথভাবে সম্পন্ন করার আহ্বান জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, আমরা শুরুতেই তাকে দোষী বলছি না। তবে বিশ্বাস করি যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া উচিত এবং অভিযোগটিতে সুবিচার দেয়া হয়েছে এটা দেখতে চাই আমরা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বৃটেনের পররাষ্ট্র বিষয়ক ছায়ামন্ত্রী এমিলি থর্নবেরি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠানোর কোনো উদ্যোগ নেয়ার আগেই অ্যাসাঞ্জকে সুইডেনে পাঠিয়ে দেয়া উচিত। যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগের নিচে ধামাচাপা পড়ে যেতে পারে যৌন অপরাধের অভিযোগ।

আরও দেখুন

করোনা ভাইরাস: সান ফ্রান্সিসকোতে জরুরি অবস্থা

ডেস্ক রিপোর্টঃ অব্যাহতভাবে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। এর প্রেক্ষিতে ক্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রান্সিসকোর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *